কৃষি ও প্রকৃতিজেলার খবরদেশজুড়েসর্বশেষ

তিস্তায় পানি বাড়ায় বাদাম-ভুট্টা-পাটের ব্যাপক ক্ষতি

ভারী বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে আকস্মিকভাবে তিস্তা নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে রংপুরের পীরগাছায় বাদাম, ভুট্টা ও পাটসহ উঠতি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। একই সঙ্গে সোমবার (২৫ মে) থেকে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় কয়েকটি গ্রামে ভাঙন শুরু হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে গত কয়েক দিন ঝড়ো বাতাসসহ বৃষ্টি হয়েছে। সোমবার রাতেও কালবৈশাখীসহ প্রচুর বৃষ্টি হয়। এতে বৃষ্টির পানি ও উজানের ঢলে তিস্তা নদীতে পানি বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। পানির তীব্রতা বাড়তে থাকায় নদী তীরবর্তী এলাকাগুলোতে দেখা দিয়েছে ভাঙন। প্রতি বছর ভাঙনের ফলে নদীর গতিপথ পরিবর্তন হয়ে ক্রমেই পশ্চিম দিকে ধাবিত হচ্ছে। আবার বালু খেকোরা নদীতে জেগে উঠা চর অবৈধভাবে কেটে বিক্রি করছে। এতে নদীর গতিপথ পরিবর্তন হয়ে নতুন নতুন এলাকায় ভাঙন দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার (২৬ মে) দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, তিস্তা নদীতে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। উপজেলার ছওলা ইউনিয়নের গাবুড়ার চর, চর ছাওলা ও শিবদেব চরসহ কয়েকটি গ্রামে নদী ভাঙন শুরু হয়েছে। এছাড়া ছাওলা ইউনিয়নের আমিনপাড়া, কামারের হাট, রামসিং ও জুয়ানের চরসহ প্রায় ১০টি গ্রামের নিম্নাঞ্চলের উঠতি ফসল পানির নিচে তলিয়ে গেছে। আকস্মিক পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় চরাঞ্চলের ৫০ হেক্টর জমির বাদাম ও ভুট্টাসহ রবি শস্যের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

কৃষকরা জানান, চরাঞ্চলে কৃষকরা বাদাম তোলা শুরু করেছিল। শতাধিক কৃষক বাদাম তুলে চরেই শুকাতে দিয়েছিল। কিন্তু হঠাৎ রাতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় উত্তোলনকৃত সব বাদাম ভেসে যায়। এতে অনেক কৃষক নিঃস্ব হয়ে গেছে।

উপজেলার জুয়ানের চর গ্রামের আব্দুর রহমান জানান, গত রোববার সন্ধ্যায় হঠাৎ করে তিস্তার পানি বাড়তে শুরু করে। রাতের মধ্যে চরাঞ্চলের ফসলি জমি পানির নিচে তলিয়ে যায়।

চর ছাওলা গ্রামের রফিকুল ইসলাম জানান, আকস্মিকভাবে তিস্তা নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে বাদাম, ভুট্টা ও পাটসহ উঠতি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

পীরগাছা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শামীমুর রহমান বলেন, পীরগাছার চরাঞ্চলে প্রায় ১৫০ হেক্টর জমিতে বাদাম চাষাবাদ হয়েছে। এর মধ্যে এখন প্রায় ২০ হেক্টর জমির বাদাম পানিতে ডুবে গেছে। তবে পানি দ্রুত নেমে গেলে পাট ও ভুট্টাসহ অন্যান্য ফসলের তেমন ক্ষতি হবে না। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের বিষয়ে খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে।

ট্যাগ
আরো দেখুন

সম্পর্কিত পোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close